মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বিস্ফোরক আইনের মামলায় কুলিয়ারচর বিএনপি’র ১৩ নেতাকর্মীর জামিন নামঞ্জুর ‘মার্কিন দূতাবাসে নালিশের পর নালিশ করেও লাভ হয়নি’ কুলিয়ারচরে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি’র নির্বাচন-২০২২ অনুষ্ঠিত চাটখিলে ব্রাজিল সমর্থকদের ১৮০ ফুট পতাকা নিয়ে মিছিল টেকসই উন্নয়নে- নবায়ন যোগ্য জ্বালানী” প্রতিপাদ্যে আইডিইবি’র ৫২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ঘিওরে নানা আয়োজনে জাতীয় সমবায় দিবস পালিত চাটখিলে পেট্রোল ঢেলে দোকান পোড়ানোর অভিযোগ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশিত নবীগঞ্জে ইমামবাড়ী রাজরাণী সুভাগিনী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়োগ কমিটিতে অনিয়মের অভিযোগ ফ‌লোআপঃ বন মামলা থে‌কে রেহায় পে‌তে লাখ টাকার মিশ‌নে পাহাড়‌খে‌কো প্রবাসী সায়মন !

ভালুকা উপজেলা চেয়ারম্যানের অত্যাচারের প্রতিবাদে শিক্ষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

সকালের কন্ঠ
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ২৬ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ময়মনসিংহের ভালুকায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ অত্যাচার ও নির্যাতনের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন একটি শিক্ষক পরিবার। গতকাল সোমবার দুপুরে ভালুকা প্রেসক্লাবে তারা ওই সংবাদ সম্মেলনটি করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, শিক্ষক পরিবারের সদস্য নূর মোহাম্মদ ছিদ্দিকী টিপু।

লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করা হয়, জনৈক মতিউর রহমান গংরা তাদের পাড়াগাঁও মৌজার ৯৮৪, ৯৮৫, ৯৮৬, ৯৮৭ ও ৯৮৮ নম্বর দাগে ২০৫ জমি জবর দখল করার চেষ্টা চালায়। পরে ন্যায় বিচারের জন্য বিষয়টি স্থানীয় এমপি কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ ধনুর কাছে লিখিত আবেদন করলে তিনি বিষয়টি দেখার জন্য উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালামকে দায়িত্ব দেন। কিন্তু চেয়ারম্যান দীর্ঘদিনেও ওই বিষয়ে কোন প্রদক্ষেপ নেননি। এদিকে চেয়ারম্যানের ইন্ধনে তাদের (টিপু) বাড়িটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। এতে তারা বাস্তহারা হয়ে পড়ে। পরে ২০২১ সালের ২৫ ডিসেম্বর উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালামের মধ্যস্থতায় এন.ডি.ই স্ট্রিল ট্রাকচার লিমিটেডের কাছে বিক্রি করে ২০৫ শতাংশ জমি বিরোধ নিষ্পত্তি করা হয়। কিন্তু উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম সুকৌশলে তারই নিকটাত্মীয় এন.ডি.ই স্ট্রিল ট্রাকচারের জি.এম জয়নাল আবেদীন জনির সহযোগিতায় তাদের নামে যমুনা ব্যাংক লিঃ মাওনা শাখা দেয়া ৮৩ লাখ ৩৭ হাজার ৫৪২ টাকার চেকটি (নম্বর ঔঈঅই ৫৩২৬৩৯৭) উত্তোলন করে নিয়ে যান।

অপরদিকে মিন্টু ব্র্যাক ব্যাংক, ভালুকা শাখা থেকে লোন নিয়ে হাফবিল্ডিং ১৪ টি রুম নির্মাণ করলে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের নির্দেশে তার ছোট ভাই আবুল কাশেম সন্ত্রাসীদের নিয়ে দিবালুকে ওই রুমগুলো ভেঙ্গে ফেলে।
তাছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের সহযোগিতায় স্থানীয় আজিম উদ্দিনের ছেলে ভূমিদস্যূ আতাউর রহমান তার বাবা আব্দুল হাই মাস্টারের পাড়াগাঁও মৌজায় সাবেক ২৯৪ দাগে ৬৫ শতাংশ জমি ভূয়া কাগজে এন.ডি.ই স্ট্রিল ট্রাকচার লিমিটেডের নামে জবর দখল করে দেয়। এ বিষয়ে সালিসের মাধ্যমে তাদেরকে ছয় লক্ষ টাকা দেয়া হলেও অদ্যবধি বাকি টাকা পরিশোধ করেনি।
তাদের অভিযোগ, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ কর্তৃক একের পর এক প্রতারিত ও নির্যাতিত হয়ে তারা মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, টিপুর বৃদ্ধ শিক্ষক বাবা আব্দুল হাই মাস্টার, ভাই নূরে রব মিন্টু, স্ত্রী স্বপ্না আক্তারসহ পরিবারের সদস্য এবং প্রতিবেশি আজাহার আলী, আব্দুল কাদির মন্ডল ও আব্দুর রশিদ মন্ডল।

শেয়ার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও
  • © All rights reserved shokalerkatho© 2023
Powered Sokaler Kontho
themesba-lates1749691102