সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
একে ধরিয়ে দিন আমার পদত্যাগের কারন মাহমুদুর রহমান বেলায়েতের ষড়যন্ত্রঃআ’লীগ নেতা জাহাঙ্গীর ট্রাফিক আইন মান্যকারীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা চাটখিল উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি বেলায়েত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ফরিদপুরে নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধ করলো ছাত্রী, পড়ালেখার দায়িত্ব নিলেন ওসি চাটখিল উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর সাধারণ সম্পাদক সাকিল কুলিয়ারচরে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি’র নির্বাচন-২০২২ অনুষ্ঠিত চাটখিলে ব্রাজিল সমর্থকদের ১৮০ ফুট পতাকা নিয়ে মিছিল টেকসই উন্নয়নে- নবায়ন যোগ্য জ্বালানী” প্রতিপাদ্যে আইডিইবি’র ৫২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ৪ হুজুরকে পেটালেন অভিভাবকেরা

করেরহাটে খালের উপর দোকান নির্মাণ, জলাবদ্ধতার আশঙ্কা

সকালের কন্ঠ
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৬ জুন, ২০২২
  • ১২৭ Time View

প্রতিবেদক।।

মিরসরাই উপজেলার ১নং করেরহাট ইউনিয়নের করেরহাট বাজারে সামান্য বৃষ্টি হলেই বাজারে হাটুপানি হয়ে যাচ্ছে, কারণ একমাত্র পানি অপসারণের খাল দুটি দখল আর দূষণে মজে গেছে। বাজারের উত্তর পাশে ছত্তরুয়া গ্রামের পানি নিষ্কাশনের একমাত্র একটি খাল রয়েছে। এই গ্রামে প্রায় পনেরো হাজার মানুষের বসবাস। খালের উপর করেরহাট থেকে ছাগলনাইয়া সড়ক রয়েছে। এই সড়কের উপর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্মিত একটি বিশ ফুটের ব্রিজ রয়েছে।

কিন্তু একটি প্রভাবশালী মহল ব্রীজের পূর্বপাশের জায়গার মালিক দাবি করে মাটি ভরাট করে। এবং পানি নিষ্কাশনের জন্য মাত্র পাঁচ ফুটের একটি ড্রেন রাখে। আবার সে ড্রেনের উপর দোকান ঘর নির্মাণ করে। অথচ এই বিশ ফুটের খাল দিয়ে পানি নিষ্কাশন হতে হিমশিম খায়। কিন্তু পাঁচ ফুটের ড্রেন দিয়ে কিভাবে পানি নামবে সে ব্যাপারে তীব্র ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেছে স্থানীয়রা।

একই চিত্র বাজারের দক্ষিণ পাশের খালটিতেও। পানি নামার একমাত্র পথে দুই পাশ সংকুচিত হয়ে গেছে তার মধ্যে খালের উপর দোকান নির্মাণ করেছে। সরকার তালুক গ্রামের পানি নিষ্কাশনের একমাত্র পথ এটি।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, মীরসরাই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ছোট বড় অধিকাংশ খাল আজ মৃতপ্রায়। বছরের পর বছর ধরে এই খালগুলো খনন না করায় খালে বর্জ্য আবর্জনায় কিছুটা ভরাট হয়ে এলে স্ব স্ব স্থানীয়রা খাল পাড়ের জমিতে বসতবাড়ি নির্মাণের ফলে খালগুলো সংকুচিত হয়ে আসছে। বিলীন হয়ে যাচ্ছে খালের গভীরতা দুই পাড়ের অবস্থা সংকুচিত। খালপাড়ে বন-জঙ্গলে একাকার হয়ে আছে। আসন্ন বর্ষায় এবারও পানির চাপে খালগুলোর পানি উপচে পড়ে স্থানীয় অনেক জনপদ তলিয়ে যাওয়ার আশংকা করছেন পরিবেশ বিশ্লেষকরা।

 

বাজার পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি আবদুর রহিম বলেন, আমরা তাদের কে বারবার নিষেধ করার পরেও আমাদের কথা শুনেন নি। তারা মাটি ভরাট করে পানির গতিপথ সংকোচন করে ফেলছে। বর্ষায় করেরহাট বাজার সহ ছত্তরুয়া গ্রাম পানিতে ডুবে থাকবে যদি এখন ব্যবস্থা না নেয়া হয়।

করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে তাদের নিষেধ করা সত্ত্বেও তারা কথা শুনে নাই। আমি‌ উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে জেনেছি। শীঘ্রই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ‌।

শেয়ার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও
  • © All rights reserved shokalerkatho© 2022
Powered Sokaler Kontho
themesba-lates1749691102